সর্বশেষ

» কবি রমজান আলীর কবিত ।। ফাঁদে পড়ে কাঁদে পাখি

প্রকাশিত: 26. June. 2020 | Friday

ফাঁদে পড়ে কাঁদে পাখি
রমজান আলী

বেলার শেষে পাখি ছানা
কান্না করে বাসায়,
মা এলো না খাবার নিয়ে
চেয়ে আছে আশায়৷

ঠান্ডা শীতল রাতে মায়ের
উষ্ণ ভালোবাসা,
আরাম করে থাকতো ছানা
ছিলো না হুতাশা৷

ক্ষুধার জ্বালায় বুকটা ফাঁটে
থর থর করে কাঁপে,
মা কী তাহার ফিরবে না আর
খেয়েছে কী সাপে?

ঝড়ের রাতে মা জননী
পাখা দিতো মেলে,
বৃষ্টি বাদল টের পেতো না
থাকতো হেসে খেলে৷

তিনটি ছানা রোদন করে
বলছে প্রভূর কাছে,
বলো প্রভূ মা আমাদের
কোথায় কেমন আছে?

মা ব্যতীত এই জগতে
মোদের কেহ নাই ,
কে করিবে লালন পালন
কোথায় মোরা যাই?

মা পাখিটা পড়ে গেছে
শিকারীর ঐ ফাঁদে,
বাচ্চাদেরই জন্যে মায়ে
হায় হায় করে কাঁদে৷

পাষাণ গড়া শিকারীর মন
ছুড়ি নিলো হাতে,
চিৎকার করে কাঁদে মায়ে
বিনয় করে সাথে৷

মেরো না মেরো না আমায়
ধরি তোমার পাঁয়,
বাসায় আমার অবুঝ ছানা
তাদের নেই উপায়৷

সারাটি দিন খায়নি ওরা
আছে পন্থ চেয়ে,
মা বিহনে অবুঝ ছানা
বাঁচিবে কী খেয়ে?

পাষাণ হৃদয় বন শিকারী
ছুড়ি দিলো গলে,
ছটপট করে মায়ের পরাণ
বাচ্চার তরে জ্বলে৷

ভোজন রসিক শিকারী আজ
খাচ্ছে উদর ভরে,
ক্ষুধার্ত ঐ অবুঝ ছানা
শুকিয়ে গেলো মরে ৷

রমজানে মিনতি করে
শিকারী সব ভাই,
বন্যপ্রাণী শিকার করতে
ভাবনা তোমার নাই?

জীবের প্রতি করলে দয়া
মহৎ হবে তুমি ,
বন্য প্রাণীর অভয় আশ্রম
হবে মোদের ভূমি৷

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৯৮ বার

[hupso]
Shares